এপ্রিলে লন্ডনে জ্বালানি খরচ তিনগুণ বাড়ছে

১৮ জানুয়ারি ২০২২, ১১:২৪ এএম

Runner Media

যুক্তরাজ্য অফিস

 

লন্ডনে এ বছরের এপ্রিল মাসে জ্বালানি খরচ তিনগুণ বেড়ে যাবে। এর ফলে লন্ডনের জ্বালানি প্রভার্টি বা জ্বালানি দারিদ্র্য মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে ৭ লাখে পৌঁছাবে। ইতিমধ্যেই সরকার মানুষের জীবন যাপনের ব্যয় বৃদ্ধি নিয়ে চাপের মুখে রয়েছে, নতুন করে জ্বালানির দাম বৃদ্ধি হলে বাড়তি চাপে পরবে সরকার।

ব্রিটেনের থিংক ট্যাংক রেজুলেশন ফাউন্ডেশন সোমবার প্রকাশিত তাদের এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রাজধানী লন্ডনে প্রতিটি পরিবার বর্তমানে তাদের বাজেটের ১০ শতাংশ জ্বালানিতে ব্যয় করে। কিন্তু এপ্রিল থেকে জ্বালানি খরচ বাড়লে এই ব্যয় ২০ শতাংশে পৌঁছাবে। ইতিমধ্যেই ব্রিটেনে মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে এবং ন্যাশনাল ইন্সুইরেন্স এর পরিমাণও বাড়ানো হচ্ছে। সবমিলিয়ে এর ফলে সাধারণ মানুষের বাৎসরিক জ্বালানি খরচ ১২৭৭ পাউন্ড থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ২০০০ পাউন্ড হবে।

রেজুলেশন ফাউন্ডেশনের মুখ্য অর্থনীতিবিদ জনি মার্শাল বলেন, মূলত গ্যাসের দাম বাড়ার কারণে মানুষের জ্বালানি খরচ বাড়ছে। এরফলে আগামী গ্রীষ্মে রাতারাতি ৬ লাখ ৯০ হাজার পরিবার এনার্জি প্রভার্টিতে পড়বে। এই অবস্থা নিয়ন্ত্রণে ব্রিটিশ সরকারের এখনই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত। গবেষণা অনুযায়ী, ইংল্যান্ডের এক চতুর্থাংশেরও বেশি পরিবারের গ্যাস এবং ইলেকট্রিসিটি বিল বহন করা দুঃসাধ্য হয়ে উঠবে। ইতিমধ্যেই নর্থইস্ট এবং ওয়েস্ট মিডল্যান্ডে এই বিল যথাক্রমে ৩৩ শতাংশ ও ৩২ শতাংশে উঠে গেছে।

এদিকে জ্বালানি বিল মানুষের সাধ্যের মধ্যে রাখতে লেবার এবং কয়েকজন টরি এমপি জ্বালানিতে ভ্যাট বাতিলের আহ্বান জানিয়েছে।

অন্যদিকে ব্রিটেনের চ্যান্সেলর রিশি সুনাক কম আয়ের পরিবার গুলোকে সহায়তার জন্য ন্যাশনাল লিভিং ওয়েজ এবং ইউনিভার্সাল ক্রেডিট বাড়ানোর পরিকল্পনা করছেন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পরিস্থিতি বিবেচনায় সেটা খুব বেশি কার্যকরি হবেনা।

আর এম/এম.জে