নিজের পকেট থেকে কর্মীদের বোনাস দিচ্ছেন ব্রিটেনের রাজা চার্লস

১৩ নভেম্বর ২০২২, ০১:৫০ পিএম

সংগৃহীত ছবি

Runner Media

ডেস্ক রিপোর্ট: 

বাকিংহাম প্যালেসে নিজের কর্মীদের এককালীন উৎসাহভাতা বিলি করছেন ব্রিটেনের রাজা তৃতীয় চার্লস। তার যাবতীয় খরচাপাতি নিজের পকেট থেকে দিচ্ছেন তিনি। যদিও রাজা চার্লসের এই সিদ্ধান্তকে ‘আপত্তিকর’ বলছেন তার সমালোচকেরা। তাদের দাবি, এ সবই চার্লসের দেখনদারি।

ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যম ‘দ্য সান-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশে অগ্নিমূল্যের বাজারে সংসার চালাতে নাজেহাল অবস্থা ব্রিটিশ রাজপ্রাসাদের কর্মীদের। ফলে মাসমাইনের পরে প্রাসাদে নিজের কর্মীদের ওই বোনাস দিচ্ছেন চার্লস। ব্রিটেনের অর্থসঙ্কটে এক-এক জন কর্মীকে ৬০০ পাউন্ড করে উৎসাহভাতা দেওয়া হচ্ছে।

বিবিসি জানিয়েছে, একমাত্র যারা বছরে ৩০ হাজার পাউন্ড আয় করেন, তাদেরকে এই ভাতা দেওয়া হবে। যদিও কর্মীদের বেতনের রকমফেরে তা কম-বেশি হতে পারে। যেমন, যে কর্মী বছরে ৩০ হাজার থেকে ৪০ হাজারের মধ্যে রোজগার করেন, তাদের এককালীন ৪০০ পাউন্ড করে দেওয়া হবে। 

অন্য দিকে, যারা ৪০ হাজার থেকে ৪৫ হাজার পর্যন্ত বছরে আয় করেন, তাদের ৩৫০ পাউন্ড করে পাবেন। রাজপরিবারের অন্যান্য কর্মীও বোনাস পাবেন বলে দাবি।

ব্রিটিশ রাজপরিবারের ২০২০-২১ সালের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বাকিংহাম প্যালেসের ৪৯১ জন স্থায়ী কর্মীর বেতনবাবদ বছরে ২৩৭ লক্ষ পাউন্ড খরচ হয়। ‘দ্য সান’-এর দাবি, রাজপ্রাসাদের এক কর্মী জানিয়েছেন যে, বাকিংহামের কর্মীদের অর্থনৈতিক সুরক্ষা নিয়ে চিন্তিত রাজা চার্লস। তাদের জন্য যে টুকু পারেন, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।

যদিও এই সিদ্ধান্তকে ‘আপত্তিকর’ বলেছেন চার্লসের সমালোচক গ্রাহাম স্মিথ। বিবিসি-র প্রতিবেদন জানিয়েছে, রাজতন্ত্র বিলোপের দাবি তোলা স্মিথের দাবি, বোনাস দিয়ে আমজনতাকে চালর্স দেখাতে চান যে তিনি কর্মীদের খেয়াল রাখেন। যদিও তিনি নিজে উত্তরাধিকার কর দেন না। যার বোঝা বইতে হয় আমজনতাকে।

 আর এম/ এম সি