হ্যারি-মেগানের নতুন কর্মস্থল 

১৩ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৬ পিএম

Runner Media

যুক্তরাজ্য অফিস

রাজপরিবার থেকে বের হয়ে যাওয়ার পর প্রিন্স হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান কি করছে, তা নিয়ে প্রশ্নের শেষ নেই। তাদের কর্মস্থল নিয়েও মানুষের আগ্রহ অনেক। সম্প্রতি প্রিন্স হ্যারি ও তাঁর স্ত্রী মেগান মার্কেল যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ ফার্ম এথিকে যোগ দিয়েছেন। 

গতকাল মঙ্গলবার এথিকের ওয়েবসাইটে বলা হয়, হ্যারি ও মার্কেল ফার্মটিতে ‘ইমপ্যাক্ট পার্টনারস’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বলে সংবাদ মাধ্যমগুলোর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

তবে প্রতিষ্ঠানটিতে হ্যারি ও মার্কেলের কাজের প্রকৃতি কী হবে, সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি। এ ছাড়া তাঁদের পারিশ্রমিক কত হবে, তা–ও প্রকাশ করেনি এথিক।

২০১৫ সালে এথিক প্রতিষ্ঠিত হয়। তারা কেবল এমন কোম্পানিতেই বিনিয়োগের দাবি করে, যা মানুষ ও পৃথিবীর প্রতি শ্রদ্ধাশীল। এথিক ধনী গ্রাহকদের পরামর্শ দেয়, কীভাবে তাদের অর্থ আরও টেকসইভাবে বিনিয়োগ করতে হয়। তারা জলবায়ু পরিবর্তন ও মানবাধিকারের মতো বিষয়গুলোতে অগ্রাধিকার দেয়।

হ্যারি ও মার্কেল দম্পতি ইতোমধ্যে এথিকে বিনিয়োগ করেছেন। বিষয়টি নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, হ্যারি ও মার্কেল দম্পতি তাঁদের সঙ্গে অনেক মূল্যবোধ ভাগাভাগি করেন, যেমনটা আরও অনেকেই করে থাকেন।

এথিকের আশা, ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্য হ্যারি ও মার্কেল বিশ্বজুড়ে লাখো মানুষের কাছে ফার্মটিকে পৌঁছাতে সহায়তা করবেন।
হ্যারি ও মার্কেল বলেছেন, তাঁরা আশা করছেন যে এথিকের সঙ্গে তাঁদের অংশীদারত্ব আরও অধিকসংখ্যক তরুণদের টেকসই কোম্পানিতে অর্থ বিনিয়োগে উৎসাহিত করবে।

এক বিবৃতিতে এই দম্পতি বলেছেন, ‘ যখন একে অপরের মধ্যে বিনিয়োগ করা হয়, তখন আসলেই  বিশ্বকেই বদলে দেওয়া যায়’
অন্যদিকে চলতি বছর জুলাই মাসে প্রিন্স হ্যারির স্ত্রী মার্কিন অভিনেত্রী মেগান মার্কেল কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন। শিশুটির নাম রাখা হয়েছে লিলিবেত ডায়ানা মাউন্টব্যাটেন–উইন্ডসর। শিশু জন্মের পরও এখন পর্যন্ত ব্রিটেনে আসেনি মেগান। তবে হ্যারি ও মেগান খুব শিঘ্রাই লিলাবেতকে দেখাতে ব্রিটেনে আসবে বলে এরই মধ্যে সংবাদ মাধ্যমগুলোতে প্রকাশ করা হয়েছে।

আর এম/তানভীর